Saturday, 21 Apr 2018

জুভেন্টাস বনাম ম্যানসিটি ম্যাচ রিপোর্ট

জুভেন্টাস স্টেডিয়ামে অপ্রতিরোধ্য জুভেন্টাস এর মুখোমুখি ম্যানচেষ্টার সিটি।  খেলার শুরু থেকেই অতিথীদের চাপে রাখে জুভেন্টাস। ফলাফল স্বরুপ আঠারো মিনিটের মাথাতেই মানজুকিচ এর গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। তারপর ধীরে ধীরে খেলায় ফিরে আসে ম্যানচেষ্টার সিটি। একের পর এক আক্রমণ করতে থাকে ম্যানচেস্টার সিটি, বিশেষ করে ইয়াইয়া তোরের একটি হেড বার ছুয়ে বেরিয়ে যায়, প্রথম অর্ধের একেবারে শেষ মুহূর্তে বুফনের হাত থেকে ফসকে যাওয়া বল আগুয়েরো পেলেও বুফনের দক্ষতায় গোল করতে পারেননি । বিরতিতে যায় জুভেন্টাস ১-০ গোলের লিড নিয়ে ।

দ্বিতীয় অর্ধে আরেকবার কর্ণার থেকে ভালো একটি হেড করেন ইয়াইয়া তোরে, অস্বাভাবিক ক্ষিপ্রতায় সেটাও ফিরিয়ে দেন বুফন! দুই দলই একের পর এক আক্রমণ রচনা করতে থাকে। তবে ম্যানচেস্টার সিটি ঠিক অতোটা ভালো ছিলোনা যতোটা ভালো হলে জুভদের ডিফেন্স ভাঙ্গা সম্ভবপর হতো, ইয়াইয়া তোরে, সার্জিও আগুয়েরো কিছু সম্ভাবনা তৈরী করেছিল, কিন্তু তা আলোর মুখ দেখেনি। সদ্য মাঠে ফেরা আগুয়েরোকে নিয়ে রিস্ক নিতে চাননি পেলেগ্রিনি। তাই তাকে উঠিয়ে নেন, বদলি হিসেবে নামেন ব্রিটিশ ওয়ান্ডার বয় রহিম স্টারলিং, পুরো ম্যাচের সবচেয়ে সহজ সুযোগটি মিস করেন তখন এই ব্রিটিশ স্ট্রাইকার। বুফন একপাশে পড়ে গেলে পুরো গোলবার ফাঁকা হয়ে যায়, শুধুমাত্র পা ছোঁয়ালেই গোল আর ম্যাচ ড্র, ঘড়ির কাটাও তখন আশি মিনিট পার হয়ে গেছে কিন্তু কপালে গোল না থাকলে যা হয়, আশ্চর্যজনক ভাবে স্টার্লিং পাও ছুইয়েছেন কিন্তু এমন ভাবেই ছুঁইয়েছেন যে বল ফার্ষ্ট বার এর খুব কাছে থাকা স্বত্বেও গোলে না গিয়ে সেকেন্ড বার এর বেশ বাইরে দিয়ে বেরিয়ে যায়।

তারপর বাকী সময় আর তেমন উল্লেখযোগ্য আক্রমন করতে পারেনি ম্যানসিটি, জুভেন্টাস আরো একটি গোল পেতে পারতো, অসাধারণ কয়েকটি সেভ করেছেন জো হার্ট! ১-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে জুভেন্টাস, এই জয়ের ফলে জুভেন্টাস এর সম্ভাবনা তৈরী হলো গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে প্রথম রাউন্ড শেষ করার।

আরো পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *